Connect with us

ভ্রমন

চীনের নিষিদ্ধ শহর ভ্রমণ, কিভাবে যাবেন এবং কিছু টিপস

ব্রিটিশ-ইতালীয় চলচ্চিত্র “দ্য লাস্ট এম্পেরর”-এ দেখা যায় চীনের শেষ সম্রাট পুই-এর জীবনের অংশবিশেষ। সেই ছবিটির কিছু অংশের শুটিং হয় “নিষিদ্ধ শহর”-এ। চীনের আধুনিক বেইজিং নগরীর কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত ১৮০ একরের এই এলাকাটি সবার কাছে পরিচিত “ফরবিডেন সিটি” বা “নিষিদ্ধ শহর” হিসেবে।

দেশটির সাধারণ প্রজা তো বটেই, রাজপরিবারের সব সদস্যও এ শহরে প্রবেশের অনুমতি পেতেন না। যারা পেতেন তাদেরও আবার সব জায়গায় যাওয়ার অনুমতি মিলতো না। শুধুমাত্র সম্রাটই ছিলেন এ নিষেধাজ্ঞার ঊর্ধ্বে। আর এ কারণেই “নিষিদ্ধ শহর” বলা হয় একে।

চীনের বেইজিং-এ অবস্থিত নিষিদ্ধ শহর (Forbidden City) বিশ্বের বৃহত্তম প্যালেস কমপ্লেক্স। নামটা নিষিদ্ধ হলেও এই শহরে প্রবেশের ব্যাপারে পর্যটকদের আগ্রহ একটু বেশীই। চীন (Chaina) ঘুরতে আসলে সাংস্কৃতিক তাৎপর্য পূর্ণ অপরূপ সৌন্দর্যের এই নগরীতে পা রাখবে না এমন পর্যটক পাওয়া মুশকিল। প্রতি বছর ১৪ মিলিয়ন পর্যটক ঘুরতে আসে এই ফরবিডেন সিটি দেখতে।

কেন এই নামকরন?
৫০০ বছর ধরে চীনের ২৪ জন সম্রাট ও তাদের পরিবারের আনুষ্ঠানিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রস্থল ছিল এই নগরী। চীনা মিং ও কিং সম্রাজ্যের সময় অনুমতি ছাড়া সাধারণ জনগনের এখানে প্রবেশ করা নিষেধ ছিল। সম্রাটের পরিবারের সদস্য ও দাওয়াত প্রাপ্ত উচ্চ কর্মকর্তাগনই শুধুমাত্র এখানে প্রবেশ করতে পারতো। এমনকি রাজপরিবারের কোন পুরুষ আত্মীয়ও এখানে আসতে পারতো না, মূলত সম্রাট তার পত্নি ও উপপত্নীদের বাইরের জগত থেকে সুরক্ষিত রাখার জন্যই এই শহরে সবার প্রবেশাধিকার মানা করে দিয়েছিলেন। আর এখন পুরো বিশ্বের মানুষ এখানে আসতে পারলেও সেই সময়ের ঘটনার পরিপেক্ষিতে এই নগরীর নামটা এখনো কার্যকর রয়েছে। যদিও এখনো এই নিষিদ্ধ নগরী পুরোপুরি সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত না। আপাতত প্যালেসের ৬০ ভাগ পর্যটকরা ঘুরে দেখতে পারে। আর বাকি ৪০ ভাগে কাজ চলছে। ২০২০ সালের মধ্যে হয়তো প্যালেসের ৮০% জায়গা পর্যটকদের দেখার সুযোগ করে দেয়া হবে।

কিভাবে ঘুরবেন নিষিদ্ধ নগরী
বেইজিং (Beijing) শহরের কেন্দ্রে ১৮০ একর জায়গা জুড়ে অবস্থিত এই নগরীর আরেকটা নাম হল প্যালেস মিউজিয়াম। এখানে ৯০ টিরও বেশী প্রাসাদ, ৯৮০ টির মতো চত্বর ও ৮,৭২৮ টির মতো রুম আছে। মূলত এই প্যালেস না দেখলে কেউ সম্রাটদের মর্যাদা ও গৌরব সম্পর্কে বুঝতে পারবে না। বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর স্থাপত্যের এক অন্যন্য নিদর্শন এই নগরী। দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্যের জন্য ১৯৮৭ সালে এই প্যালেসকে বিশ্ব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

নিষিদ্ধ নগরী দুই ভাগে বিভক্ত। দক্ষিনের ভাগ মূলত বাইরের দিকের অংশ। এখানের সম্রাট বিভিন্ন অফিসিয়াল কাজ করার সাথে সাথে জনসম্মুখে বিচার সালিশ করতো। পুরো কমপ্লেক্সের মধ্যে এই জায়গা পর্যটকদের ছবি তোলার জন্য বেশ পছন্দের। আর উত্তরের দিকের অংশ হল অভ্যন্তরীণ কোর্ট, এখানে সম্রাট নিজের পরিবার নিয়ে থাকতো।

এখানের প্রতিটি ভবনের খুঁটিনাটি জিনিস গুলো ভালো ভাবে খেয়াল করবেন, অদ্ভুত সুন্দর কারুকাজ, রঙের মিশ্রণ আর প্রতীকি কিছু বিষয় ফুটে উঠেছে, যা যেকোন পর্যটককে মুগ্ধ করার মতো।

এখানের ভবনগুলোর মধ্যে গেট অফ গ্রেট হারমোনি, হল অফ গ্রেট হারমোনি, দা প্যালেস অফ হেভেনলি, দা হল অফ মেন্টাল কাল্টিভেশন, দা গেট অফ ডিভাইন মাইট, হল অফ প্রিজারভিং হারমোনি, দা হল অফ লিটারারি গ্লোরি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

এই জাদুঘরে কিং সম্রাজের বিশেষ কিছু জিনিস সংরক্ষিত আছে। যেমন- চিত্রশিল্প, সিরামিক্স, সিলস, ভাস্কর্য এবং ব্রোঞ্জ ও এনামেলের উপর খোঁদাই করা বিভিন্ন জিনিস।

এখানে ঘুরার ক্ষেত্রে অনেকে গাইড সাথে নিয়ে ঘুরতে পছন্দ করে, সেই ক্ষেত্রে সুবিধা হল গাইড আপনাকে প্রতিটা ভবনের ইতিহাস জানাবে আবার অনেকে নিজে একটি গাইড বই নিয়ে ঘুরে ঘুরে পুরো জায়গার ইতিহাস জানতে পছন্দ করে। এখানকার ইম্পেরিয়াল গার্ডেনে ঘুরতেও বেশ ভালো লাগে পর্যটকদের।

কিভাবে যাবেন
বেইজিং এর ভিতরে অবস্থিত এই নিষিদ্ধ শহরে যেতে পারেন বাস, সাবওয়ে কিংবা প্রাইভেট কারে। বাসে উঠে তিয়ানান ম্যান স্কোয়ারের উত্তর দিকে নামলেই নিষিদ্ধ নগরীতে ঢোকার দক্ষিনের গেট পাওয়া যাবে।

মেট্রো রেলের চড়ে দুই ভাবে এই শহরে যাওয়া যায়। মেট্রো লাইন ১ এর ক্ষেত্রে, প্রথমে মেট্রো লাইনে তিয়ানানম্যান পশ্চিমে বা তিয়ানানম্যান পূর্বের ষ্টেশনে নামতে হবে, তারপর তিয়ানানম্যান টাওয়ার থেকে উত্তরে হাঁটলেই নিষিদ্ধ শহরের গেট অফ হেভেনলি পেয়ে যাবেন।

জর্ডান: মরুভূমির ক্যানভাসে ইতিহাসের জলছবি

মেট্রো লাইন ২ এর ক্ষেত্রে, কিয়ানমেন স্টেশনে নেমে তিয়ানানম্যান টাওয়ার থেকে উত্তরে হাটলেই প্যালেসে ঢোকার গেট পাবেন। এখানে প্রবেশের জন্য দুইটা গেট আছে, নিষিদ্ধ নগরীর সামনের গেটকে মেরিডিয়ান গেট বলা হয়। এই গেট দিয়েই নগরীর ভিতরে যাওয়া ভালো তাতে গেট অফ ডিভাইন থেকে এই প্যালেসের সাথের জিংশান পার্ক ঘুরে আসতে পারবেন।

সময়সূচী ও ফি
প্রতিদিন সকাল ৮.৩০ থেকে ৩.৩০ পর্যন্ত এই নগরী পর্যটকদের জন্য খোলা থাকে। গ্রীষ্মকালে ৩.৩০টা পর্যন্ত টিকেট বিক্রি হয়, দাম ৬০ চাইনিজ ইয়ুয়ান ( বাংলাদেশী টাকায় ৭৩৭ টাকা)। আর শীতকালে এখানে বিকাল ৩.৩০ পর্যন্ত পর্যটকদের জন্য টিকেট বিক্রি হয়, দাম ৪০ চাইনিজ ইয়ুয়ান (বাংলাদেশী টাকায় ৪৯২ টাকা)। এই প্যালেস প্রতি সপ্তাহের সোমবার বন্ধ থাকে।

কোথায় থাকবেন
বেইজিং শহরে থাকার জন্য আছে বেশ কিছু ভালো হোস্টেল ও গেস্ট হাউজ। যেমন- সানি গেস্ট হাউজ, গোল্ডেন গেস্ট হাউজ, বেইজিং ১৬১ ড্রাম টাওয়ার হোটেল, বেইজিং লান্টিং ইয়োথ হোস্টেল, লিও হোস্টেলে ১৫০০-৪৫০০ টাকায় ২ জন থাকতে পারবেন। এখানে থাকার জন্য বেশ কিছু এপার্টমেন্টও আছে। এমনকি কারো বাসায় রুম শেয়ার করেও থাকা যায়। সেই ক্ষেত্রে অবশ্যই খরচ বেশ কম হবে।

কিছু ভ্রমণ টিপস
এখানে প্রচুর টুরিস্ট আসে, তাই টুরিস্ট বাস গুলোতেও প্রচুর ভিড় হয়। ভিড় এড়ানোর জন্য সকাল সকাল যাওয়ার চেষ্টা করবেন।
গ্রীষ্মকাল বাদ দিয়ে যেকোনো সময় যেতে পারেন এই নগরীতে। তবে শরৎ ও শীতকালের আবহাওয়া পর্যটকদের জন্য অনুকূলে থাকে।
এখানে টিকিট সংখ্যা সীমিত তাই আগে থেকেই টিকেট কাটার ব্যবস্থা করুন।
২০১৭ সাল থেকে ভিসা ছাড়া এই নিষিদ্ধ নগরী দেখার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে।
অনলাইনে টিকেট কাটার ব্যবস্থা আছে, সেই ক্ষেত্রে ১০ দিন আগেই টিকিট বুকিং দিয়ে রাখতে পারেন।
এখানে আসার সময় পাসপোর্ট সাথে রাখবেন। চেকিং এর সময় কাজে লাগতে পারে।
প্যালেসের ভিতরে শুকনো খাবার নিয়ে যাওয়ার অনুমতি পাবেন।
হাঁটার জন্য আরামদায়ক স্যান্ডেল ও রোদ থেকে রক্ষার জন্য হ্যাট পড়ে নিবেন।
এখানের উত্তর-পূর্বের চূড়ার দিকের জায়গা ছবি তোলার জন্য সবচেয়ে ভালো।
সময় থাকলে জিংশান পার্কে হাইকিং করতে পারবেন।
প্যালেস অফ মিউজিয়াম থেকে নাইন ড্রাগনসের টেরাকোটা দেখার সুযোগ মিস করবেন না।

নজরুল ইসলাম,  লনলি রুট ট্রাভেলস্

Continue Reading
Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement
আন্তর্জাতিক4 months ago

ভারতে করোনা ভ্যাকসিন কর্মসূচি কর্মসূচি শুরু হচ্ছে জানুয়ারিতে

শিক্ষা4 months ago

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত

আন্তর্জাতিক5 months ago

সরকারিভাবেও জয়ী বাইডেন

আন্তর্জাতিক5 months ago

শিগগিরই বৈধতা পাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসী

ঢালিউড5 months ago

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯ ঘোষণা; সেরা চলচ্চিত্র ন’ ডরাই-ফাগুন হাওয়া,

অর্থনীতি5 months ago

নির্ধারিত সময়ে আয়কর রিটার্ন না দিলেও জরিমানা হবে না

অর্থনীতি5 months ago

ইতিবাচক অবস্থায় বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ

অর্থনীতি5 months ago

সপ্তাহের ব্যবধানে স্বর্ণের দাম ১১৬৬ টাকা কমলো

দেশজুড়ে5 months ago

অবশেষে ভাসানচর যাচ্ছে রোহিঙ্গারা

প্রযুক্তি5 months ago

অডিও-ভিডিও কনফারেন্সিং ডিভাইস নিয়ে এলো ডেল

ভিডিও6 months ago

রোজকার ত্বকের পরিচর্যায় সানস্ক্রিনে কেন গুরুত্বপূর্ণ

প্রযুক্তি6 months ago

স্টাইলের সাথে ফিটনেস প্রতিশ্রুতি নিয়ে ‘হুয়াওয়ে ওয়াচ ফিট’

বিনোদন6 months ago

২.৪২ কোটি টাকার মার্সিডিজ পুড়িয়ে দিলেন রুশ ইউটিউবার

বিনোদন6 months ago

করোনা’ কবিতা লিখে ঝড় তুলেছেন নচিকেতা (ভিডিও)

আন্তর্জাতিক6 months ago

ভেতর খুব গরম, তাই উড়োজাহাজের পাখায় উঠে পায়চারি

প্রযুক্তি6 months ago

৪টি নতুন মডেলের আইফোনের ঘোষণা দিল অ্যাপল

আন্তর্জাতিক1 year ago

যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ড সাময়িক স্থগিত হবে: ট্রাম্প

ভিডিও1 year ago

পা দিচ্ছেন না তো ভয়ঙ্কর সুন্দরীর ফাঁদে?

প্রযুক্তি1 year ago

অনলাইনে ফ্রি ফটোগ্রাফি শেখার সুযোগ

ভিডিও1 year ago

ভবিষ্যতের শীর্ষ ১০ যানবাহন

Facebook

Advertisement

সর্বাধিক পঠিত